January 21, 2021, 5:06 pm
প্রধান শিরোনাম :
ইসলামপুরে অগ্নিকাণ্ডে ক্ষতিগ্রস্ত ভিক্ষুক পরিবারের খোঁজ নিলেন ইউএনও  জুমানের নেতৃত্বে সাবেক ছাত্রনেতাদের উপস্থিতিতে বিজয়ের জন্মদিন পালিত  ফার্মা এন্ড ফার্ম আবুল কালাম আজাদের স্বপ্ন পুরণে কাজন করছে কবিরাজের ঝাড়ঁফুকঁ ছাড়া বিরল রোগে আক্রান্ত খাদিজার ভাগ্যে ২০ বছরেও চিকিৎসা জুটেনি বিপ্লব আওয়ামীলীগের বন ও পরিবেশ উপ-কমিটি’র সদস্য মনোনীত সময় টিভির স্টাফ রিপোর্টার ও ক্যামেরা পার্সন হামলার শিকার সাংবাদিক খাদেমুল হক বাবুল মোটরসাইকেল দুর্ঘটনায় গুরুতর আহত  বকশীগঞ্জে মায়ের সাথে আশালিন আচারণ করায় ছেলের কারাদন্ড শাস্ত্রীয় সংগীত শিল্পী নিশাত আরজু বকশীগঞ্জে ডিজিটাল দিবস পালিত

বিপ্লব আওয়ামীলীগের বন ও পরিবেশ উপ-কমিটি’র সদস্য মনোনীত

রির্পোটারের নাম
  • খবর আপডেট সময় Tuesday, January 5, 2021
  • 111 এই পর্যন্ত দেখেছেন

এম শাহীন আল আমীন।। বকশীগঞ্জের কৃতি সন্তান ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক ছাত্রলীগ নেতা মোস্তাফিজুর রহমান বিপ্লব বাংলাদেশ আওয়ামীলীগের বন ও পরিবেশ কমিটির সদস্য মনোনীত হয়েছেন। বাংলাদেশ আওয়ামীলীগের কেন্দ্রীয় নেতা মোস্তাফিজুর রহমান বিপ্লব নিজ এলকায় ও কেন্দ্রীয়ভাবে দীর্ঘদিন যাবৎ সততার সাথে দলীয় কার্যক্রম চালিয়ে যাচ্ছেন।

মোস্তাফিজুর রহমান বিপ্লব ১৯৭৫ সালের ১৫ অক্টোবর জামালপুর জেলার বকশীগঞ্জ উপজেলায় জন্ম গ্রহন করেন। তাঁর  পিতা- মরহুম হাবিবুর রহমান মাষ্টার, মাতা- আলহাজ্জ্ব বেগম ফজিলাতুন্নেছা জোসনা  স্ত্রী সীমা ইসলাম এবং একমাত্র পুত্র তানভীর ইয়াসার মোহাসিফ। মোস্তাফিজুর রহমান বিপ্লব ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় থেকে ভূগোল ও পরিবেশ বিজ্ঞান বিষয়ে বি.এস.সি ডিগ্রী অর্জন করেন। মোস্তাফিজুর রহমান বিপ্লব ১৯৮৬ সাল হতে রাষ্ট্র দর্শন ও রাজনীতির সাথে পরিচয় লাভ করেন।

১৯৮৫ সালে পঞ্চম শ্রেণীতে বৃত্তি প্রাপ্তির পর তৎকালীন সোভিয়েত ইউনিয়ন হতে মাসিক বই পাঠানো হত, যেখানে সেক্যুলারিজম, রাষ্ট্র, রাজনীতির দর্শন সর্ম্পকে বিশদ আলোচনা থাকত এবং যা সেক্যুলারিজম ও সমাজতান্ত্রিক রাজনীতির প্রতি আকর্ষন বৃদ্ধি করে। পরবর্তীকালে মরহুম পিতার কাছে বাংলাদেশের রাজনীতি, বালাদেশ জাতিসত্ত্বার অভ্যুদ্বয় ও স্বাধীন বাংলাদেশ বির্নিমাণের নেপথ্য ঘটনা সর্ম্পকে অবহিত হয়ে জাতির জনক বঙ্গবন্ধুর হাতে গড়া সংগঠন বাংলাদেশ আওয়ামীলীগের প্রতি বিশেষ দূর্বলতা ও মমত্ববোধ তৈরী হয় এবং ১৯৯১ সালের সাধারন নির্বাচনে (নটরডেম কলেজে পড়াকালীন সময়ে) সবুজবাগ-মতিঝিল হতে আওয়ামীলীগের প্রার্থী মোজাফফর হোসেন পল্টুর সমর্থনে নির্বাচনী কাজে সরাসরি সম্পৃক্ত হন।

১৯৯২ সালে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তি হই এবং ১৯৯৪ সালে ঢাকা সিটি কর্পোরেশন নির্বাচনে প্রয়াত মেয়র জনাব মোহাম্মদ হানিফের পক্ষে নির্বাচনী কাজে অংশগ্রহন করেন।  তৎকালীণ বিরোধী দলীয় নেত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনার তত্ত্বাবধানে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় কেন্দ্রিক একটি নির্বাচন জরিপ কমিটি করা হয় এবং তাকে উক্ত কমিটির সদস্য করা হয়। জরিপে এক লক্ষ ভোটের ব্যবধানে আওয়ামীলীগ মনোনীত প্রার্থী জয়ী হবে বলে রিপোর্ট দেয়া হয় এবং বাংলাদেশ আওয়ামীলীগ মনোনীত প্রার্থী প্রয়াত মেয়র জনাব মোহাম্মদ হানিফ এক লক্ষ এক হাজার ভোটের ব্যবধানে জয় লাভ করে। ইতোমধ্যে ১৯৯৪ সালে তৎকালীন ছাত্রলীগের সভাপতি মাঈনুদ্দীন হাসান চৌধুরী ও সাধারন সম্পাদক ইকবালুর রহিম এবং ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের তৎকালীন সভাপতি (বর্তমানে বিচারপতি) খিজির হায়াৎ মোহাম্মদ লিজু এবং সাধারন সম্পাদক পংকজ দেবনাথ বিপ্লবকে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় শহিদুল্লাহ হল ছাত্রলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক নির্বাচিত করেন।

১৯৯৬ সালের সাধারন নির্বাচনে বাংলাদেশ আওয়ামীলীগ মনোনীত ঢাকা- ১০আসনের প্রার্থী জনাব এইচ বি এম ইকবালের নির্বাচনী কমিটির অর্ন্তভূক্ত হয়ে নির্বাচনী কাজে অংশগ্রহন করেন এবং বাংলাদেশ আওয়ামীলীগ রাষ্ট্রীয় ক্ষমতায় অধিষ্ঠিত হয়। ১৯৯৬ সালে বাংলাদেশ আওয়ামীলীগ রাষ্ট্রীয় ক্ষমতায় অধিষ্ঠিত হওয়ার পর ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সাধারন ছাত্র-ছাত্রীদের কম্পিউটার শিক্ষার গুরুত্ব সর্ম্পকে তৎকালীন প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনার পরামর্শে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের তৎকালীন সভাপতি বাহাদুর বেপারী ও বিপ্লবসহ তিন-চারজন উদ্যোগ গ্রহন করেন। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের তৎকালীন ভিসি এ কে আজাদ  সিটি কর্পোরেশনের মেয়র মোহাম্মদ হানিফ এবং ঢাকা-১০ আসনের তৎকালীন এমপি এইচ বি এম ইকবালের নিকট থেকে প্রাপ্ত সর্বমোট তিনটি কম্পিউটারের মাধ্যমে সাইন্স ক্যাফেটেরিয়ার দো-তলায় প্রশিক্ষন কর্মশালার উদ্যোগ গ্রহন , যা পরবর্তীতে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সবগুলো হলে বিস্তার লাভ করে। যার ফলশ্রুতি বর্তমান ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের কম্পিউটার সায়েন্স ডিপার্টমেন্ট।

১৯৯৮ সালের ১৫ ই অক্টোবর ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রলীগ কমিটি গঠনের লক্ষ্যে ছাত্রলীগের সাংগঠনিক নেত্রী তৎকালীন প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনার অনুমোদন সাপেক্ষে আওয়ামীলীগের ছাত্র বিষক কমিটির প্রধান সাবেক যুব, ক্রীড়া ও সংস্কৃতি প্রতিমন্ত্রী জনাব ওবায়দুল কাদেরের নির্দেশে তৎকালীন সভাপতি এ কে এম এনামূল হক শামীম ( বর্তমানে পানি সম্পদ উপ-মন্ত্রী) এবং সাধারন সম্পাদক ইসহাক আলী কান পান্না স্বাক্ষরিত ৯ (নয়) জনকে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রলীগে মনোনীত করেন এবং বিপ্লবকে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রলীগের সহ-সভাপতি নির্বাচিত করা হয়। পরবর্তীতে সকলের সাথে পরামর্শক্রমে ৪১ সদস্য বিশিষ্ট ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রলীগের পূর্ণাঙ্গ কমিটি করা হয়। ২০০২ সালে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রলীগের সম্মেলন অনুষ্ঠানের লক্ষ্যে বিপ্লবকে আহবায়ক করে তিন সদস্যের আহবায়ক কমিটি গঠন করা হয় এবং ইঞ্জিনিয়ারিং ইনস্টিটিউটে তৎকালীন বিরোধী দলীয় নেত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনার উপস্থিতিতে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রলীগের কমিটি গঠনের লক্ষ্যে আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয় এবং সভাপতি হিসেবে মোঃ দেলোয়ার হোসেন (বর্তমানে আওয়ামীলীগের বন ও পরিবেশ সম্পাদক) এবং সাধারন সম্পাদক হিসেবে হেমায়েত উদ্দিন হিমুকে মনোনীত করা হয়।

২০০২ সালে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রলীগের কমিটি গঠনের আলোচনা সভায় ছাত্রলীগের সাংগঠনিক নেত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনার নির্দেশনা ও ঘোষনার ফলে তৎকালীন ছাত্রলীগ কেন্দ্রীয় কমিটির সভাপতি লিয়াকত শিকদার এবং সাধারন সম্পাদক নজরুল ইসলাম বাবুর কমিটির কার্যকরী সদ্য হিসেবে অর্ন্তভূক্ত করা হয়।

২০০৮ সালের সেনা শাসিত তত্ত্বাবধায়ক সরকারের সময় বিরুপ পরিস্থিতি ও সময়ের মধ্যদিয়ে কারাবন্দী নেত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনার মুক্তির দাবীতে আন্দোলন সংগ্রামে লিপ্ত থাকেন বিপ্লব এবং ২০০৮ সালের ডিসেম্বর মাসে অনুষ্ঠিত সাধারন নির্বাচনে বাংলাদেশ আওয়ামীলীগের পক্ষে নির্বাচনী কর্মকান্ডে অংশগ্রহন করেন এবং বাংলাদেশ আওয়ামীলীগ পুনরায় রাষ্ট্রীয় ক্ষমতায় অধিষ্ঠিত হয়। ৯ম জাতীয় সংসদ নির্বাচনে আওয়ামীলীগ সরকার গঠন করে এবং তৎকালীন তথ্য এবং সংস্কৃতি বিষয়ক মন্ত্রী (বর্তমানে সভাপতি, পরিকল্পণা মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত স্থায়ী কমিটি) জনাব আবুল কালাম আজাদ এমপি মহোদয়ের সহকারী একান্ত সচিব (এপিএস) হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন বিপ্লব অদ্যাবধি তাঁর সাথে সর্ম্পৃক্ত থেকে এলাকা ও এলাকার মানুষের সেবায় নিয়োজিত থাকতে সচেষ্ট মোস্তাফিজুর রহমান বিপ্লব।

বিগত ৩১/১২/২০২০ খ্রিঃ তারিখে বাংলাদেশ আওয়ামীলীগের সভাপতি ও মাননীয় প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনার অনুমোদন সাপেক্ষে সাধারন সম্পাদক জনাব ওবায়দুল কাদের স্বাক্ষরিত বাংলাদেশ আওয়ামীলীগ, বন ও পরিবেশ বিষয়ক উপ-কমিটি’র (২০১৯-২২) সদস্য মনোনীত করেন।

দয়া করে খবরটি শেয়ার করুর

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই ক্যাটাগরিতে আরো যেসব খবর রয়েছে
© কপিরাইট ২০১৭ গণজয়
CodeXive Software Inc.
themesba-lates1749691102